Thursday , July 29 2021
Home - ভিন্ন খবর - রাস্তায় ছটফট করছিলেন যুবকটি, এগিয়ে গেলেন না কেউ

রাস্তায় ছটফট করছিলেন যুবকটি, এগিয়ে গেলেন না কেউ

রাস্তায় যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন এক যুবক। তাঁকে দেখতে ভিড় করেন উৎসুক লোকজন। অনেকে ভিডিও করেছেন দূর থেকে। তবে কেউ যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেননি। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ছুরিকাহত যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের কলেজ সড়কের প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

মারা যাওয়া ওই যুবকের নাম শরীফ। তিনি শ্রীমঙ্গলের শহরতলির শাহজিবাজার এলাকার শায়েস্তা মিয়ার ছেলে।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, শরীফ ও তাঁর বন্ধু সজীব শনিবার বিকেলে শহরের একটি আবাসিক হোটেলে একটি কক্ষ ভাড়া নেন। ভাড়া নেওয়ার পর সেই কক্ষে তাঁরা কিছু সময় অবস্থান করেন। বেলা ৩টা ২৫ মিনিটে তাঁরা ওই হোটেলে যান। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করার পর বিকেল চারটার দিকে তাঁরা দুজন একসঙ্গে বেরিয়ে যান। শহরের একটি পেট্রলপাম্পের সামনে সন্ধ্যার দিকে দুজনকে ঝগড়া করতে দেখা গেছে।

শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন বলেন, অভিযুক্ত সজীবকে ধরার জন্য পুলিশের অভিযান চলছে। তাঁকে ধরতে পারলেই ঘটনার কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় অনেক আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এদিকে রাস্তায় পড়ে যুবকের ছটফট করার ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে দেখা যায়, ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত ওই যুবক রাস্তায় পড়ে ছটফট করছেন। লোকজন এগিয়ে গেলে যুবক নিজের নাম শরীফ বলে জানান এবং সজীব নামে শান্তিবাগ এলাকার এক ব্যক্তি তাঁকে ছুরিকাঘাত করার কথা উল্লেখ করেন। শহরতলির শাহজিবাজার ও তাঁর বাবার নাম শায়েস্তা মিয়া বলে জানান যুবক।

খবর পেয়ে শ্রীমঙ্গল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবির এসে শরীফকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে নেওয়ার কিছুক্ষণ পরই শরীফ মারা যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *