লকডাউন অমান্য করে সাইফ, কারিনা ও তৈমুর সমুদ্রে

Binodon

পান থেকে চুন খসলেই নেটিজেনরা ট্রলে ট্রলে ধুয়ে দেন বিটাউন তারকাদের। তবে এবার বলিউডের নবাব অভিনেতা সাইফ আলী খান সংগত কারণেই আলোচনায় উঠে এলেন। কার্যত লকডাউন অমান্য করে মাস্ক ছাড়াই স্ত্রী ও ছোট সন্তানকে নিয়ে বাইরে বের হয়েছেন এই বলিউড সুপারস্টার।

মহারাষ্ট্র সরকার কিছু কিছু ক্ষেত্রে লকডাউন শিথিল করেছে। আর তাই সাধারণ মানুষ ইতিমধ্যে বাসার বাইরে পা রাখা শুরু করেছেন। ‘আনলক ওয়ান’-এর পর মুম্বাইয়ের মেরিন ড্রাইভে মানুষের ভিড় দেখা গেছে। এরই মধ্যে সমুদ্রসৈকতে পুত্র তৈমুর আলী খানসহ দেখা গেছে সাইফ আলী খান আর কারিনা কাপুর খানকে।

সমুদ্রের তাজা হাওয়া খেতে সাইফ ও কারিনা তৈমুরকে সঙ্গে নিয়ে সমুদ্রসৈকতে হাজির হয়েছিলেন। সঙ্গে তৈমুরের ‘ন্যানি’ও ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁদের সমুদ্রসৈকতে হাঁটার ছবি এবং ভিডিও দ্রুত ভাইরাল হয়। আর এর জন্য নবাব পরিবার রীতিমতো ট্রলের শিকার হচ্ছে। মহারাষ্ট্র সরকার সমুদ্রতটে হাঁটাহাঁটির অনুমতি দিয়েছে। তবে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। আর সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। তবে শিশুদের বাসার বাইরে আনার অনুমতি দেয়নি রাজ্য সরকার। এদিকে সাইফ-কারিনা রীতিমতো সরকারের নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন। তাঁদের মুখে মাস্কের বালাই নেই। তার ওপর তিন বছরের তৈমুর তাঁদের সঙ্গে! আর সে জন্যই ট্রোলারদের শিকার হচ্ছেন সাইফ।

একটি ভিডিওতে দেখা গেছে সমুদ্রের এলোমেলো হাওয়ার মধ্যখানে তৈমুরকে কাঁধে নিয়ে সাইফ দাঁড়িয়ে আছেন। আর পাশেই আছেন কারিনা। এই ভিডিওতে সাইফ-কারিনাকে এক ব্যক্তি বলছেন, ‘ছোট বাচ্চাকে বাইরে আনা মোটেই উচিত হয়নি। আপনাদের কি কাণ্ডজ্ঞান বলে কোনো বস্তু নেই?’

বলিউড তারকারা সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বারবার এগিয়ে আসেন। এমনকি সরকারও নানান সামাজিক বার্তা তাঁদের মাধ্যমে সমাজের কাছে পৌঁছে দেন। এসবের মধ্যে সাইফের এই আচরণ সবাইকে অবাক করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *